Blog Single

07 Jun

যেভাবে যাত্রা হলো শুরু

তখন ফ্লেক্সিলোড নামের কিছুই ছিলো না। বাজারে সর্বনিন্ম ৩০০ টাকার কার্ড চলতো। কার্ড কিনে এনে বসে থাকতাম কার থেকে কখন একটা মোবাইল পাওয়া যায়। পেলেই ৩০০ টাকা লোড করে ইন্টারনেট এ ঢুকে যেতাম। একটু ঘুরে ফিরে ২/৩ টা ইমেইজ ডাউনলোড করতেই ব্যালেন্স শেষ। আবার এর পরের দিনের অপেক্ষা…

এভাবেই একদিন মাথায় আসলো যারা এই ওয়েবসাইট ইন্টারনেট ইত্যাদি নিয়ে কাজ করছে তাদের লাভ কোথায়? আমার ৩০০ টাকার কার্ড থেকেই কি তারা তা পাচ্ছে? শুরু হলো নতুন করে তথ্য খোঁজা। একটু একটু করে শিখে ফেললাম গুগল নামের সার্চ ইঞ্জিনকে ব্যবহার করা। জানলাম না তারা আমার কার্ড এর থেকে পয়সাও পায় না। তাহলে তাদের লাভ কোথায়?

সেই খুঁজতে খুঁজতে পেতে থাকলাম একে একে রহস্যের সমাধান সমূহ… একসময় আমার ও ইচ্ছে হলো আমিও এরকম ওয়েবসাইট বানাবো। আমিও ইন্টারনেট থেকে আয় করবো। কিন্তু আমার কম্পিউটার মোবাইল কিছুই নেই। তাও ধিরে ধিরে শিখতে থাকলাম কিভাবে কি হয় কি করে কি চলে ইত্যাদি।

একদিন বাসায় কম্পিউটার আসলো। প্রথম একমাস গেলো কম্পিউটারে কিভাবে কি করে তা শিখতে। এরপর অনেক ঘাঁটাঘাঁটি করে একই সময় বানালাম একটি ওয়েবসাইট Weebly তে। কিন্তু কি রাখবো এখানে? খুঁজতে খুঁজতে মনে হলো কম্পিউটার টিপস রাখবো। শুরু হলো টিপস লিখা। এই লিখতে লিখতে দুদিনে ৫০ বারেরও বেশী বার কম্পিউটার এর অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল করে একটি গাইডও লিখলাম বাংলায় কিভাবে অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল করতে হয় তা নিয়ে যা প্রথম-আলোতে ফিচার করা হয়। আগ্রহ আরো বাড়িয়ে দিলো 😀 । এখন দরকার এই ওয়েবসাইট আরো প্রমোট করার একটা ব্যবস্থা। খুললাম ফেসবুক গ্রুপ (COMPUTER TIPS & TROUBLESHOOTING). এই গ্রুপটি আমার এগিয়ে যাওয়ার পিছনে অনেক সহায়তা করেছে। যদিও অন্যভাবে। মানুষকে প্রশ্নের উত্তর খুঁজে দিতে গিয়ে নিজেই শিখতে থাকলাম। যতো উত্তর দেই ততোই শিখি। এভাবেই চলতে চলতে একটা পোস্ট এর কারণে অনেক রেসপন্স পেয়ে আরেকটি গ্রুপ এর যাত্রা শুরু। (FREELANCE HELPLINE). আমার চাপ বেড়ে দিগুণ। এভাবেই অনেক চাপ, যুদ্ধ করতে করতেই এগিয়ে যাওয়া।

আমার প্রথম দুইটি কম্পিউটার কোন মতেই ৩ মাসের বেশী টিকে নাই। এতোই অত্যাচার করেছিলাম। দুইটি কম্পিউটার নষ্ট হওয়ার পর দীর্ঘদিন শুধু মোবাইল থেকেই ফ্রীল্যান্সিং এর কাজ করি।

 

এই দীর্ঘ পথে অনেক ধাক্কা পেতে পেতে এগিয়ে আসা। অনেক মানুষ এই পথে সহায়তা করলেও বাঁধার পরিমাণ ছিলো অনেক বেশী।

ধন্যবাদ দিতে চাই সেসকল মানুষদের যারা সবসময় পাশেই ছিলো, আছে থাকবে। যাদের জন্য আজ এই আমি। যাদের সাহস আমাকে এগিয়ে নিয়ে এসেছে এই পর্যায়ে। সবসময়েই আপনারা আমাকেও পাশেই পাবেন 🙂

লেগে ছিলাম। আছি। থাকবো। দেখতে থাকা স্বপ্নগুলো বাস্তবায়ন করবো 🙂

(সংক্ষেপিত)

Related Posts

Leave A Comment